বিশ্ব শিক্ষক দিবস: তারিখ, ইতিহাস, তাৎপর্য, শুভেচ্ছা বার্তা, ছবি

সকল শিক্ষকের সম্মানার্থে প্রতিবছর বাংলাদেশ ভারত তথা বিশ্বের বহু দেশে শিক্ষক দিবস পালিত হয়ে আসছে।১৯৯৪ সাল থেকে জাতিসংঘের অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে প্রতিবছর 5 ই অক্টোবর উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে পালিত হয়। এ দিবসের মতো দিয়ে শিক্ষক এবং ছাত্র ছাত্রীদের মেলবন্ধন তৈরি হয়। প্রতিবছর অসংখ্য মানুষ শিক্ষক দিবস সম্পর্কে ইন্টারনেটে অনুসন্ধান করে থাকে। তাই আজকে এই নিবন্ধে আমরা শিক্ষক দিবসের যাবতীয় তথ্য আলোচনা করব।

বিশ্ব শিক্ষক দিবস কবে?

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ নিজ নিজ পছন্দমত তারিখ অনুযায়ী শিক্ষক দিবস পালন করে আসছে। কিন্তু বিশ্ব শিক্ষক দিবস ১৯৯৫ সাল থেকে প্রতিবছর ৫ ই অক্টোবর তারিখে পালিত হয়। ইউনেসকোর মতে বিশ্ব শিক্ষক দিবস শিক্ষা ও উন্নয়নের ক্ষেত্রে শিক্ষকদের অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ পালন করা হয়। বিশ্বের প্রায় ১০০ টিরও বেশি দেশ ৫ অক্টোবর বিশ্ব শিক্ষক দিবস পালন করে ।

দেশ ভেদে শিক্ষক দিবস

বিশ্বের ১০০টি দেশে শিক্ষক দিবস পালিত হয়ে থাকে। অনেক দেশে দিবসটি ভিন্ন ভিন্ন তারিখে পালিত হয়। যেমন: ভারতে শিক্ষক দিবস পালিত হয় ৫ সেপ্টেম্বর। অস্ট্রেলিয়ায় অক্টোবর মাসের শেষ শুক্রবার শিক্ষক দিবস হিসেবে পালিত হয়। শেষ শুক্রবার যদি ৩১ অক্টোবর হয়, তা হলে ৭ নভেম্বর শিক্ষক দিবস পালিত হয়। ভুটান শিক্ষক দিবস পালন করে ২ মে, ইন্দোনেশিয়া ২৫ নভেম্বর, মালয়েশিয়া ১৬ মে, ইরান ২ মে, ইরাক ১ মার্চ, আর্জেন্টিনা ১১ সেপ্টেম্বর, ব্রাজিল ১৫ অক্টোবর, চীন ১০ সেপ্টেম্বর, তাইওয়ান ২৮ সেপ্টেম্বর, থাইল্যান্ড ১৬ জানুয়ারি, সিঙ্গাপুর সেপ্টেম্বরের প্রথম শুক্রবার দিনটি পালন করে।

বিশ্ব শিক্ষক দিবসের ইতিহাস

১৯৬৬ সালের ৫ অক্টোবর ফ্রান্সের প্যারিসে শিক্ষকদের অবস্থা নিয়ে আন্তঃসরকার সম্মেলন হয়েছিল। সেখানেই শিক্ষকদের কথা চিন্তা করে ইউনেস্কো এবং আন্তর্জাতিক শ্রম সংগঠন (আইএলও) কিছু পরামর্শে স্বাক্ষর করে। প্রথমবারের মতো এসব পরামর্শ শিক্ষকদের অধিকার, দায়িত্ব এবং বিশ্বব্যাপী শিক্ষকতা পেশার বিভিন্ন দিক নিয়ে ছিল।

১৯৯৪ সালে জাতিসংঘের অঙ্গ সংস্থা ইউনেস্কোর ২৬তম অধিবেশনে গৃহীত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে ৫ অক্টোবর ‘বিশ্ব শিক্ষক দিবস’ হিসেবে পালনের ঘোষণা দেওয়া হয়। এরপর থেকে বাংলাদেশসহ পৃথিবীর অনেক দেশেই প্রতি বছরের ৫ অক্টোবর যথাযোগ্য মর্যাদায় বিশ্ব শিক্ষক দিবস পালিত হয়ে আসছে।

বিশ্ব শিক্ষক দিবসের তাৎপর্য

শিক্ষককে দেশ গড়ার কারিগর বলা হয়। কারন একটি দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম কে মানুষের মত মানুষ করে তৈরি করেন একজন শিক্ষক। একটি সন্তানের সামাজিকীকরণে বাবা মায়ের অবদান এর পরেই সবচেয়ে বেশি অবদান একজন শিক্ষকের। শিক্ষার অধিকার মানে একজন যোগ্য শিক্ষকের অধিকার বিশ্বসম্প্রদায়কে এটা মনে করে দেয়া যে, শিক্ষার অধিকার প্রশিক্ষিত যোগ্যতাসম্পন্ন শিক্ষক ছাড়া অর্জন করা সম্ভব নয়। বিশ্ব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় অযোগ্য শিক্ষকের অভাব যথেষ্ট রয়েছে।

ইউনেস্কোর হিসাব অনুযায়ী সারা বিশ্বে প্রায় ২৬৪ মিলিয়ন শিশু ও যুবক স্কুলের বাইরে। ২০৩০ খ্রিস্টাব্দের মধ্যে সার্বজনীন প্রাথমিক উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা পৌঁছে দেওয়ার জন্য প্রায় ৬ কোটি নতুন শিক্ষক প্রয়োজন। শিক্ষক সবার জন্য সমান ও মানসম্মত শিক্ষা অর্জনের চাবিকাঠি। শিক্ষক হচ্ছেন এমন একটা মাধ্যম যার মাধ্যমে শিক্ষা প্রদান করা হয় এবং শিক্ষা ছাড়া একটি মৌলিক মানবাধিকার পূরণ করা যায় না। বিশ্ব শিক্ষক দিবস শিক্ষা উন্নয়নে শিক্ষকের অবদানকে স্মরণ করার জন্য পালন করা হয়ে থাকে।

কিন্তু এত কিছু সত্ত্বেও বাংলাদেশের মত দেশে একজন শিক্ষকের সঠিক মর্যাদা দেওয়া হয় না। একজন শিক্ষক কোন কোন ক্ষেত্রে তার মৌলিক অধিকারটুকু থেকেও বঞ্চিত হয়। একজন শিক্ষকের সঠিক বেতন পর্যন্ত দেওয়া হয় না বর্তমান বাংলাদেশের সমাজ ব্যবস্থায়। বর্তমান উন্নত বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য আমাদের শিক্ষকদের আধুনিক প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা অত্যন্ত আবশ্যক। কারণ একজন শিক্ষক এই প্রকৃত মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের মেধাকে বিকশিত করে। বাংলাদেশের বেতন কাঠামো ঠিক না থাকায় প্রকৃত মেধাবীরা শিক্ষকতা পেশায় আসতে চায়না। কিন্তু এত বাধা-বিপত্তির ছেড়েও আমাদের গুরুজন শিক্ষকেরা এখনো শিক্ষকতা পেশায় আছেন। আমাদের সমাজকে উন্নত থেকে উন্নত অবস্থায় নিয়ে যাচ্ছে এজন্য সকল শিক্ষককে আজকের এই দিনে আমার অন্তস্থল থেকে জানাই ভালোবাসা। শিক্ষকের জীবনের মান উন্নয়ন হোক, তৈরি হোক যোগ্য শিক্ষক, আলোকিত হোক সমাজের, প্রতিটি মানুষ বিশ্ব শিক্ষক দিবসে এই হোক আমাদের অঙ্গীকার।

শিক্ষক দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা

সমাজ গড়ার কারিগর একজন শিক্ষক। জন শিক্ষকের হাত ধরে গড়ে ওঠে একজন আদর্শ মেয়ে নিষ্ঠাবান আগামীর প্রজন্ম। আমাদের আগামী প্রজন্মকে মানুষ করার গুরুদায়িত্ব যিনি নিয়েছেন তিনি হলেন শিক্ষক। আজ এই শিক্ষক দিবসে বিনম্র শ্রদ্ধা জানাই সেই শিক্ষকদেরকে, যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে একটি দেশ পাচ্ছে একজন যোগ্য নাগরিক। তাই আমি এই নিবন্ধে শিক্ষক দিবসের কিছু শুভেচ্ছাবার্তা সংযুক্ত করলাম।

  •  জীবনের গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা পাওয়া আপনার হাত ধরেই। আপনিই শিখিয়েছেন কীভাবে চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হয়। শিক্ষক দিবসে আপনাকে প্রণাম জানাই।
  • সমাজ গঠনে অসামান্য অবদানের জন্য সকল শিক্ষক -শিক্ষিকাদের জানাই শুভ শিক্ষক দিবস!
  • * বিনম্র শ্রদ্ধায় অবন্ত মোরা, হে মানুষ গড়ার কারিগর।

বিশ্ব শিক্ষক দিবসের ছবি

শিক্ষক দিবস যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে উদযাপন করা হয় পৃথিবীতে  ১০০ টিরও বেশি বেশি। এই শিক্ষক দিবসে আমরা আমাদের প্রিয় শিক্ষকদের বিভিন্ন ছবির মাধ্যমে শুভেচ্ছাবার্তা জানাতে পারি । ছবির মাধ্যমে শিক্ষক দিবসের শুভেচ্ছা জানানো অন্যতম একটি প্রধান মাধ্যমে পরিণত হয়েছে। এই

বিশ্ব শিক্ষক দিবস
বিশ্ব শিক্ষক দিবস

দিকটি বিবেচনা করে নিবন্ধে এই অংশে শিক্ষক দিবসের কিছু ছবি তুলে ধরলাম।

বিশ্ব শিক্ষক দিবস
বিশ্ব শিক্ষক দিবস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *