বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস; তারিখ, ইতিহাস, শুভেচ্ছা বার্তা, উক্তি ও ছবি

চারদিকে মানুষ গিজগিজ করছে। বিশেষ করে আমাদের মধ্যে এশিয়া পাওয়া আফ্রিকার মানুষদের মধ্যে জনসংখ্যা যেন লাগামহীন ঘোড়া। এই অতিরিক্ত জনসংখ্যার ফলে পৃথিবী তার ভারসাম্য হারাচ্ছে। তাই জনসংখ্যাকে নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য পৃথিবীব্যাপী বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। আপনি যদি বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে এই নিবন্ধটি আপনার জন্য। এই নিবন্ধে আমরা বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস এর যাবতীয় তথ্য আলোচনা করব।

মাত্র ১০  থেকে ১১ হাজার বছর আগে পৃথিবীতে মানুষের জনসংখ্যা ছিল মাত্র ৪০  লাখের মতো। হাজার শতাব্দীতে দিতে এসে দাঁড়ায় ১০০  কোটিতে। মাত্র ১৩০  বছরে তা ডাবল হয়ে দাঁড়ায় ২০০ কোটি। তারপরে মাত্র ৫০  বছরের কম সময়ে তা আবারও দ্বিগুণ হয়ে ৪০০  কোটিতে পৌঁছায়। ১৯৭৫  সালে পৃথিবীর জনসংখ্যা ছিল ৪০০  কোটি। আর বর্তমানে প্রায় ৮ বিলিয়ন বা ৮০০ কোটি ছুই ছুই। পৃথিবীতে যে হারে মানুষ বাড়ছে তার সাথে পাল্লা দিয়ে খাদ্য উৎপাদন বাড়বে না। নিকট ভবিষ্যতে জনসংখ্যা বিস্ফোরণের জন্য কোটি কোটি মানুষ মারা যাবে খাদ্যের অভাবে। অনাহারে এবং দুর্ভিক্ষে। ১৭৫৮ সালে অর্থনীতিবিদরা বাট ম্যালথাস একথা বলে সবাইকে ভয় খাইয়ে দিয়েছিলে। শুধু ম্যালথাস না একথা বহু বিশেষজ্ঞ অনেক আগে থেকেই বলে আসছে। তারা বলেছিল পৃথিবী তে মানুষ বাড়ছে জ্যামিতিক হারে। কিন্তু খাদ্য বাড়ছে গাণিতিক হারে। তাই অতিরিক্ত জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে মানুষের মহাবিপর্যয় অতি সন্নিকটে।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস কবে?

বিশ্বে যেহারে জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে সে হারে খুব অচিরেই পৃথিবী তার চিরচেনা রূপ পরিবর্তন করতে পারে। পৃথিবীর মানুষকে জনসংখ্যা বিষয়ক সচেতনতা বাড়ানোর জন্য বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস প্রতি বছর ১১ই জুলাই তারিখে পালিত একটি সাংবাৎসরিক আয়োজন, যার লক্ষ্য বিশ্ব জনসংখ্যা সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্নের উপরে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস  শুভেচ্ছাবার্তা

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস মূল লক্ষ্য হলো বিশ্বের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করা। বিশ্বের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আপনি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারেন। জাতিসংঘ ঘোষিত বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস এ আপনি জনসংখ্যা বৃদ্ধি জনিত সমস্যার নানান এসএমএস দিয়ে আপনার বন্ধু-বান্ধব প্রয়োজন এবং ফেসবুক ওয়ালে শেয়ার করতে পারেন। সেখান থেকে সাধারন জনগন জনসংখ্যা সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করবে। এই জন্য আমি এই নিবন্ধে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস এর শুভেচ্ছা বার্তা সংযুক্ত করেছি।

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উক্তি

পৃথিবীর জনসংখ্যা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধি নিয়ে আলোচনা সমালোচনার শেষ নেই। নতুন আর কি কি পদক্ষেপ নেয়া যায়, কিংবা কীভাবে মানুষের ভোগান্তি কমিয়ে আনা যায়, এসব আরও একবার হিসাব-নিকাশ করার জন্যই আজকের এই দিনটি। জনসংখ্যা বেড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যোগ হয়েছে নতুন নতুন সমস্যা। অবিশ্বাস্য মনে হলেও সত্য যে, প্রতিদিন বিশ্বে প্রায় ২৫,০০০ মানুষ মারা যাচ্ছে খাদ্যাভ্যাস ও অপুষ্টিজনিত কারণে। এছাড়া সুপেয় পানির অপ্রতুলতা, বাতাসের বিষাক্ততা, সম্পদের বিলুপ্তি, বাসস্থানের সমস্যা, ওজোন লেয়ার ধ্বংস ইত্যাদি বহু বিরূপ প্রতিক্রিয়ার মুখোমুখি হচ্ছে বিশ্ব।এতকিছুর পরেও অতিরিক্ত জনসংখ্যার ভাগ পৃথিবীর সহ্য করতে পারছে না।অতিরিক্ত জনসংখ্যা কে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য। একটু দিন বিখ্যাত ব্যক্তিগন বিখ্যাত বিখ্যাত কিছু উক্তি দিয়ে গেছে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষে সে স্বপক্ষে উক্তি দেখে নিব।

  • “একটি সীমাবদ্ধ পৃথিবী একমাত্র সীমাবদ্ধ বাসিন্দাদের সহায়তা করতে পারে; পরবর্তীকালে, বাসিন্দাদের বিকাশের অবশেষে শূন্যের সমান হওয়া উচিত “। – গ্যারেট হার্ডিন
  • “একটি স্যাচুরেটেড বাসিন্দাদের জীবনে সর্বদা স্বল্প ব্যয় হয়।” – জ্যাক লন্ডন
  • “জনসংখ্যা, যাচাই না করা হলে জ্যামিতিক অনুপাত বৃদ্ধি পাবে”। – টমাস মালথাস
  • “আমরা সবাই বাসিন্দাদের বিস্ফোরণ সম্পর্কে ভয় পাই, তবে আমরা সঠিক সময়ে এটি সম্পর্কে ভয় পাই না।” – আর্টওয়ার্ক হপ্পে
  • “বাসিন্দাদের উন্নয়নের পিছনে কাটাতে আপনি যে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি করতে সক্ষম হবেন তা হ’ল অবশ্যই উন্নত করা।” – চালান গেটস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *