বিশ্ব পোলিও দিবস; তারিখ, ইতিহাস, শুভেচ্ছা বার্তা

প্রতিবছর প্রতিমাসের নির্দিষ্ট কিছু দিনে বিভিন্ন দেশে কিছু দিবস পালিত হয়। ওই নির্দিষ্ট দিনে অতীতের কোনো গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা কে স্মরণ করা বা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সচেতনতা তৈরী করতেই এই সমস্ত দিবস পালিত হয়। পালনীয় সেই সমস্ত দেশ গুলির মধ্যে একটি হলো বিশ্ব পোলিও দিবস।অনেকের একাধিক প্রচেষ্টায় আজ পৃথিবীর বুক থেকে পোলিও ভাইরাস নির্মূল করা সম্ভব হয়েছে গত এক দশক ধরে আজকের দিনে আয়োজিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক পোলিও দিবস সারা পৃথিবীতেই পোলিও রোগের সংখ্যা কমেছে কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কমাতে নয় রোগের একেবারে নির্মূল বিশ্বাসী।

পোলিও দিবস কবে?

প্রতিবছর 24 অক্টোবর বিশ্ব পোলিও দিবস পালন করা হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সারা বিশ্ব থেকে পোলিও নির্মূল করার লক্ষ্যে কাজ করছে। গত বছরে শতাধিক পোলিও রোগ ধরা পড়েছে। সবকয়টি নাইজেরিয়া পাকিস্তান এবং আফগানিস্তানের। আসুন আজ বিশ্ব পোলিও দিবস সম্পর্কে আরও কিছু তথ্য জানি।পোলিও দিবস মূলত জোনাস এডওয়ার্ড সল্ক এর স্মরণে করা হয়। যিনি পোলিও টিকা আবিষ্কারক।

পোলিও দিবসের ইতিহাস

১৯৮৮ সালে রোটারি ইন্টারন্যাশনাল ২৪  শে অক্টোবর বিশ্ব পোলিও দিবস ঘোষণা ও পালন করেন। সেই সময় সারা বিশ্বে ১২৫ টি  দেশকে চিহ্নিত করা হয়েছিল যেখানে প্রতি বছর ৩  লক্ষ ৫০  হাজার মানুষ পোলিও রোগে আক্রান্ত হয়। বিশ শতকের পাঁচের  এর দশকে জনাস সালকে  এর নেতৃত্বে তৈরি পোলিও নিরাময়ের ভ্যাকসিন আরো একটু বিকাশ ঘটিয়ে আলবার্ট সাবিন দুর্বল পোলিও ভাইরাস নিরাময়ের দ্বিতীয় আরেকটি টিকা তৈরি করেন ১৯৭৫ সালে। যেটি মূলত খাওয়ানোর জন্য ব্যবহার করা হয়। এই দুটি আবিষ্কারে ব্যাপক ব্যবহার ও সাফল্যের ওপর ভিত্তি করে পোলিওমুক্ত বিশ্ব গঠনের জন্য ১৯৮  সালে তৈরি হয়েছিল গ্লোবাল ইরাডিকেশন ইনিশিয়েটিভ।মূলত এই সংস্থার হাত ধরে পোলিও রোগ নির্মূলের ব্যাপক সাফল্য অর্জন করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

পোলিও দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা

পোলিও দিবসের শুভেচ্ছা বার্তা বলতে মূলত পোলিও টিকাদান কর্মসূচি কে আরো জোরদার করার লক্ষ্যে মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি কি বুঝায়। হঠাৎ পোলিও দিবস আপনি যদি একজন মানুষকে শুভেচ্ছা বার্তা দিয়ে স্মরণ করিয়ে দেন আজ বিশ্ব পোলিও দিবস। তাহলেই ওই মানুষটি তার আশেপাশের মানুষকে বিষয়টা জানাবে এবং নিকটস্থ পোলিও টিকাদান কেন্দ্রে গিয়ে টিকা কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবে। তাই পোলিও দিবস এর শুভেচ্ছা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। নিচ্ছে আমি পরিবেশ দিবসের কয়েকটি শুভেচ্ছাপত্র সংযুক্ত করেছি। এই শুভেচ্ছা বার্তা গুলো দিয়ে আপনি আপনার আশেপাশের মানুষদের পোলিও টিকাদান কর্মসূচি সম্পর্কে অবগত করতে পারেন।

পোলিও রোগের লক্ষণ

পোলিও অসাধারণ লক্ষণগুলোর মধ্যে জ্বর মাথা ব্যাথা স্বরভঙ্গ বমি ক্লান্তি ব্যথা ঘাড় পিঠ শক্ত হয়ে যাওয়া বেশি দুর্বলতা। এই লক্ষণগুলো সংক্রমণে দশ দিন পর্যন্ত বজায় থাকে। গুরুতর লক্ষণগুলোর মধ্যে পড়ে মস্তিষ্ক-ঝিল্লীর প্রদাহ এবং পা বা বাহুর অপরিবর্তনীয় পক্ষাঘাত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *